নোটিশ

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ২২ এপ্রিল – হবে ২২ জেলায় পরীক্ষা

আমরা অনেকেই প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা কবে? কত তারিখ থেকে পরীক্ষা হবে এবং কয় ধাপে পরীক্ষা হবে তা নিয়ে বিভিন্ন ভাবে খুজি। আজ আপনাদের জানাবো প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা কবে হবে। আরো জানতে পারবেন কত তারিখ কোন কোন জেলার পরীক্ষা হবে। তবে শুরু যাক, আজকের টপিক প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ সম্পর্কে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১লা এপ্রিল শুরু হচ্ছে না। ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের এ পরীক্ষা আগামী ২২ এপ্রিল শুরু হতে পারে।

পাঁচ ধাপে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। আগামী ২২, ২৯ এপ্রিল এবং ১৩ই মে বিকেল ৩টায় প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ৩২ হাজার ৫৭৭ শিক্ষক পদে নিয়োগে এ পরীক্ষা নেবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা কবে হবে?

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে জানানো হয়, পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তুতি মোটামুটি শেষ হয়েছে। পরীক্ষা পরিচালনার জন্য কেন্দ্র প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করে তাদের তথ্য নেয়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকা মহানগরীর  বিভিন্ন কেন্দ্রে  এ অনুষ্ঠান আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রায় ৪৫ হাজার নতুন শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

দীর্ঘদিন প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ আটকে থাকায় স্কুলগুলোতে সৃষ্ট শিক্ষক সংকট নিরসনে প্রায় ৪৫ হাজার শিক্ষক পদে নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়। আগামী এপ্রিল মাসের মধ্যে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। জুলাই মাসে উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের নিয়োগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষক পরীক্ষা কত তারিখ

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা তারিখ কয়েকবার পরিবর্তন করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারী এককে সময় এককে তারিখে পরীক্ষা নেওয়া কথা বলেছে। সর্বশেষ জানা যায় আগামী ২২ এপ্রিল থেকে পরীক্ষা শুরু হবে। সর্বমোট ৫ ধাপে পরীক্ষা সম্পর্ণ করা হবে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা আগামী ২২ এপ্রিল শুরু হবে। প্রথম ধাপে ২২টি জেলার মধ্যে ১৪টির সব উপজেলা এবং ৮টি জেলার কয়েকটি উপজেলার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এদিন ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৭৬৪ জন প্রার্থীর নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

কোন কোন তারিখে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

  • ১ম ধাপের পরীক্ষা হবে আগামী ২২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে
  • ২য় ধাপের পরীক্ষা হবে আগামী ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে
  • ৩য় ধাপের পরীক্ষা হবে আগামী ১৫ মে অনুষ্ঠিত হবে
  • ৪র্থ ধাপের পরীক্ষা হবে আগামী ২০ মে অনুষ্ঠিত হবে
  • ৫ম ধাপের পরীক্ষা হবে আগামী ২৭ মে অনুষ্ঠিত হবে

২২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত জেলারগুলো হলো

চাঁপাইনবাগঞ্জ, মাগুরা, শেরপুর, গাজীপুর, নরসসিংদী, মানিকগঞ্জ, ঢাকা, মাদারীপুর, মুন্সিগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চট্টগ্রাম, মৌলভীবাজার, লালমনিরহাট জেলার সব উপজেলার লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া, বেলকুচি, চৌহালী, কামারখন্দ, কাজীপুর; যশোর জেলার ঝিকরগাছা, কেশবপুর, মনিরামপুর, শার্শা; ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা, ধোবাউড়া, ফুলবাড়িয়া, গফরগাঁও, গৌরীপুর, হালুয়াঘাট, ঈশ্বরগঞ্জ; নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া, বারহাট্টা, দুর্গাপুর, কমলকান্দা, কেন্দুয়া; কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম, বাজিতপুর, ভৈরব, হোসেনপুর, ইটনা, করিমগঞ্জ, কটিয়াদি; টাঙ্গাইল জেলার সদর, ভূয়াপুর, দেলদুয়ার, ধনবাড়ি, ঘাটাইল, গোপালপুর; কুমিল্লা জেলার বরুয়া, ব্রাক্ষণপাড়া, বুড়িচং, চান্দিনা, চৌদ্দগ্রাম, সদর, মেঘনা, দাউদকান্দি এবং নোয়াখালি জেলার কবিরহাট, সদর, সেনবাগ, সোনাইমড়ি, সুবর্ণচর উপজেলার প্রার্থীদের পরীক্ষা ২২ এপ্রিল নেয়া হবে।

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার পাস মার্ক কত?

আপনারা জানেন যে, ৮০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় (এমসিকিউ) প্রতিটি শুদ্ধ উত্তরের জন্য এক নম্বর এবং প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।

এখানে যেহেতু  কাট মার্কস রয়েছে সেহেতু পরীক্ষায় পাশ কত নম্বরে হবে তা বলা মুশকিল. প্রতিযোগিতাপূর্ণ পরীক্ষার মধ্যে কাট মার্কস থাকলে তার নিশ্চয়ই পাশ নম্বর সঠিকভাবে বলা যায় না.  তাই পরীক্ষার হলে বেশ ভালো করলেও তাদের কিছু নম্বর কাটা যাবে। তাই কাট মার্কস ৬৫ থেকে ৭০ এর মধ্যে থাকবে।

Check This

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button