রকি, ফুজিয়ামা ও ব্ল্যাক ফরেস্ট পর্বত এবং বাংলাদেশের মধুপুর চত্বর ও বদ্বীপ গঠনের প্রক্রিয়া উপর একটি প্রতিবেদন

ভূপৃষ্ঠ সর্বদা পরিবর্তনশীল। নানা প্রকার তৃত্রক্িয়া তূপৃষ্ঠের পরিবর্তন সাধন করে। যে সমন্ত কার্ধাবলির কারণে প্রাকৃতিকভাবে ভূমির্পের পরিবর্তন সাধিত হয় তা ভূপ্রক্রিয়া। যেমন- নদী অবক্ষেপণের মাধ্যমে প্রাবন ভূমি গড়ে তুলছে। এখানে নদী অবক্ষেপণ একটি প্রক্রিয়া। ভূপ্রক্রিয়া তার কার্য সাধনের জন্য নানাপ্রকার প্রাকৃতিক শক্তির সাহায্য নেয়। যেমন- মাধ্যাকর্ষণ, ভূতাপীয় শক্তি এবং সৌরশত্তি। এ সমস্ত শত্তির সাহায্যে ভূপরকিয়া ভূপৃষ্ঠের কোথাও ধীরে ধীরে পরিবর্তন আনে, আবার কখনো কখনো খুব দ্ুত পরিবর্তন সাধন করে। সাধারণভাবে বহিশক্তির (যেমন- সৌরশস্তি) সঙ্গে জড়িত তপ্রকিয়া তৃপৃষ্ঠে ধীর পরিবর্তন আনে। সুদীর্ঘ সময় ধরে ভূপুষ্ঠে এই পরিবর্তন চলে বিধায় একে ধীর পরিবর্তন বলে। ধীর পরিবর্তন সাধারণত দুটি প্রক্িয়ায় সম্পন্ন হয়। যেমন- নগ্নীভবন ও অবক্ষেপণ। অপরদিকে অন্তঃশক্তির (যেমন- ভূমিকম্প) সঙ্গে জড়িত তুপ্রকিয়ায় ভূপৃষ্ঠে মুত পরিবর্তন সাধিত হয়। নিচে তৃত্বকের পরিবর্তন সাধনকারী ভূপ্রক্রিয়াসমূহের একটি ছক দেওয়া হলো ।

রকি, ফুজিয়ামা ও ব্ল্যাক ফরেস্ট পর্বত এবং বাংলাদেশের মধুপুর চত্বর ও বদ্বীপ গঠনের প্রক্রিয়া উপর একটি প্রতিবেদন

নির্দেশনা: ক) ভুপৃষ্ঠের পরিবর্তন প্রক্রিয়ার প্রকারভেদ বর্ণনা করতে পারবে; খ) পৃথিবীর প্রধান ভুমিরূপের প্রকারভেদ ও বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করতে পারবে; গ) পর্বত ও সমভূমির গঠন ও প্রকারভেদ বর্ণনা করতে পারবে;

ভুপৃষ্ঠের পরিবর্তন প্রক্রিয়ার প্রকারভেদ বর্ণনা

পৃথিবীর প্রধান ভুমিরূপের প্রকারভেদ ও বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করতে পারবে

পর্বত ও সমভূমির গঠন ও প্রকারভেদ বর্ণনা করতে পারবে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top